জাতিসংঘের মর্যাদাকর চ্যাম্পিয়নশীপ পেল ইপসা

0
61
 নিউজ ডেস্ক |  শনিবার, জুন ৫, ২০২১ |  ৯:২৪অপরাহ্ণ

প্রতিবন্ধী নারীদের জন্য আইসিটি প্রশিক্ষণের পাশাপাশি কর্মসংস্থান নির্ধারণের সুবিধা এবং যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার (এসআরএইচআর) সম্পর্কিত তথ্য প্রদান করে তাদের ব্যক্তিগত এবং পেশাদার জীবনের জন্য সার্বিকভাবে প্রস্তুত করার উদ্দেশ্যে স্থায়ীত্বশীল উন্নয়নের জন্য সংগঠন ইপসার প্রকল্প জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস) ফোরামের চ্যাম্পিয়নশীপের মর্যাদা লাভ করেছে।

ডব্লিউএসআইএস ২০২১ চ্যাম্পিয়নশীপ সনদ ইপসা’র প্রধান নির্বাহী জনাব আরিফুর রহমানের হাতে তুলে দিচ্ছেন ইপসা আইআরসিডি’র টিম লিডার ভাস্বর ভট্টাচার্য।

ডব্লিউএসআইএস ফোরাম ২০২১ (১৭-২১ মে, ২০২১) চলাকালীন, ইপসা পরিচালিত ‘এম্পাওয়ারিং ওমেন উইথ ডিজএ্যাবিলিটিস থ্রু মার্কেট ড্রিভেন আইসিটি ট্রেনিং এ্যান্ড অ্যাক্সেসিবল ইনফরমেশন অন এসআরএইচআর’ উদ্যোগটিকে ডব্লিউএসআইএস পুরস্কারের ৩ নং ক্যাটাগরিতে (অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশন এ্যান্ড নলেজ) চ্যাম্পিয়ন হিসাবে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে আজ শনিবার (৫ জুন, ২০২১) ইপসা প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে কোভিড ১৯ মহামারীর জন্য নির্দেশিত বিধিবিধান এক উদযাপন সভা আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে ইপসা আইআরসিডি’র টিম লিডার ভাস্বর ভট্টাচার্য ডব্লিউএসআইএস ২০২১ চ্যাম্পিয়নশীপ সনদ ইপসা’র প্রধান নির্বাহী জনাব আরিফুর রহমানকে হস্তান্তর করেন।

সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় ইপসা’র প্রধান নির্বাহী মো. আরিফুর রহমান তার বক্তব্যে বাংলাদেশে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সার্বিক অবস্থার উন্নতির জন্য ধারাবাহিকভাবে উদ্ভাবন ও নতুনত্ব আনয়নের জন্য ইপসার প্রতিবন্ধী অন্তর্ভুক্তি দলকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরো বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই ইপসা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদেও উন্নয়নকে তার অন্যতম মূল এজেন্ডা হিসাবে বিবেচনা করেছে যা স্থানীয় পর্যায় থেকে শুরু হয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃত হয়েছে। জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস চ্যাম্পিয়নশীপ ইপসার জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। এসব স্বীকৃতি আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলাকে আরো অনুপ্রাণিত করবে। এছাড়া তিনি ইপসা’র জাতিসংঘের যুব শান্তি পুরস্কার, ই-এনজিও চ্যালেঞ্জ, জিরো প্রজেক্ট, ইউনেস্কো অ্যাওয়ার্ড ইত্যাদি অর্জনের কথাও স্মরণ করেন।

ইপসা আইআরসিডি’র টীম লিডার ভাস্কর ভট্টচার্য বলেন, ‘আমরা এই উদ্যোগের আওতায় বিভিন্ন ইভেন্টের পাশাপাশি নানা ধরনের অনলাইন এবং অফলাইন মিডিয়ার মাধ্যমে সচেতনতা উপকরণগুলি ধারাবাহিকভাবে প্রচার করেছি, যা এই উদ্যোগের উদ্দেশ্য এবং গুরুত্ব সম্পর্কে জনগনের জ্ঞান ও জানার পরিধিকে বিস্তৃত করছে।’

সভায় অন্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন ইপসা’র পরিচালক (অর্থ) পলাশ চৌধুরী, পরিচালক (অর্থনৈতিক উন্নয়ন) মোর্শেদ চৌধুরী, উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শাহজাহান, উপ-পরিচালক নাছিম বানু, প্রকল্প সমন্বয়কারী মোহাম্মদ আলী শাহিন, সিনিয়ন প্রোগ্রাম অফিসার মো. ওমর শাহেদ হিরো, যুব ফোকাল আবদুস সবুর প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস) জাতিসংঘের একটি অনন্য দ্বি-পর্যায়ের  শীর্ষ সম্মেলন যা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিগত (আইসিটিস) বিষয়গুলির সমাধানের লক্ষ্যে একটি বিকশিত বহু-স্টেকহোল্ডার প্ল্যাটফর্ম তৈরির জন্য শুরু করা হয়েছিল। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির (আইসিটি) ব্যবহারকারি প্রকল্পগুলো মূল্যায়নের কার্যকর ব্যবস্থা তৈরি করার জন্য ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here