মানবসেবা শিখেছি বাবার কাছ থেকে- জীবাণুনাশক টানেল ও ত্রাণ বিতরণ নিয়ে সাক্ষাৎকারে এনএইচ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ

0
669
 হাকিম মোল্লা |  মঙ্গলবার, মে ১৯, ২০২০ |  ১০:১০অপরাহ্ণ

কোভিড ১৯ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ফ্রন্টলাইন ফাইটার পুলিশকে দেয়া হয়েছে জীবাণুনাশক ডিজিনফেকশন স্প্রে অটো চেম্বার বা টানেল। ত্রাণ বিতরণ করছেন, বিভিন্ন মসজিদ ও মাদ্রাসার অভাবী আর সমস্যায় জর্জরিত মানুষের পাশে থেকে। আর  কৃষকের মাঠ থেকে ক্রয় করছেন  সবজি। বন্ধুদের নিয়ে সেই সবজি বিতরণ করছেন দুস্থদের মাঝে। আরও সহায়তা তো আছেই। বন্ধুরাও তার এই উদ্যােগকে সফল করতে পাশে থাকছেন সবসময়।  এ হলো প্রখ্যাত  ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এনএইচ কর্পোরেশনের উদ্যোগ। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন, এনএইচ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন সাজেন।

১৮ মে সোমবার ২০২০ চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী থানাধীন ডিআইজি, পিবিআই ও ট্যুরিস্ট পুলিশ কার্যালয়ে  জীবানুমুক্তকরণ অটো চেম্বার স্থাপন করা হয়েছে। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি মো. মুসলিম। চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার আপেল মাহমুদ, জেট এন্ড এম ট্রেডিং কর্পোরেশনের সত্বাধিকারী আহমেদ আলী খান, এনএইচ করপোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন সাজেন।

এসময় প্রধান অতিথি বলেন, করোনাযুদ্ধে ফ্রন্ট লাইনে থেকে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। তাই তাদের সুরক্ষিত থাকা বেশি প্রয়োজন। চট্টগ্রামের প্রসিদ্ধ ঐতিহ্যবাহী এনএইচ করপোরেশনকে ধন্যবাদ জানাই আমাদের কার্যালয়ে এরকম একটি জীবানুমুক্তকরণ চেম্বার বসানোর জন্য। এনএইচ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন বলেন, পুলিশ সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। তারা নিরাপদ থাকলে নগরবাসী নিরাপদ থাকবে।
একই দিন এনএইচ কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগরীর ডিসি নর্থ কার্যালয়ে আরেকটি জীবাণুমুক্তকরণ স্যানিটাইজার অটো চেম্বার স্হাপন করা হয়েছে।  এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে  উপস্থিত ছিলেন, ডিসি নর্থ-বিজয় বশাক।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,  এসিস্ট্যান্ট কমিশনার-দেবদূত মজুমদার, পুলিশ সুপার-মোহাম্মদ মিজান, এডিসি-মোহাম্মদ আসিক, এনএইচ কপোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন সাজেন, জেট এন্ড এম ট্রেডিং কর্পোরেশনের সত্বাধিকারী আহমেদ আলী খান,  সি কম শিপিং এর পরিচালক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন চিশতি,কপোরেট হাউজিং সোসাইটির সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ সাজ্জাদ।

এসময়  ডিসি নর্থ-বিজয় বশাক বলেন করোনাযুদ্ধে ফ্রন্ট লাইনে থেকে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। তাই তাদের সুরক্ষিত থাকা বেশি প্রয়োজন। এনএইচ কর্পোরেশনকে ধন্যবাদ জানাই  আমাদের কার্যালয়ে এরকম একটি জীবানুমুক্তকরণ চেম্বার বসানোর জন্য।
এনএইচ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন বলেন, দৃষ্টান্তস্বরূপ লক্ষণীয় যে, করোনা পরিস্থিতির স্বাস্থ্যঝুকি সত্ত্বেও পুলিশ সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। তারা নিরাপদ থাকলে নগরবাসী নিরাপদ থাকবে। সাথে আহবান জানান সমাজের বৃত্তবানদের তারাও যাতে দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে এগিয়ে আসেন স্ব স্ব অবস্থান থেকে।

এর আগের দিন ৩১নং আলকরণ ওয়ার্ডস্থ বিভিন্ন মসজিদ ও মাদ্রাসার অভাবী আর সমস্যায় জর্জরিত মানুষের পাশে থেকে ত্রাণ বিতরণ করেন। এসময় বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশ চট্টগ্রাম বিভাগের এডিশনাল আপেল মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন। ভাইসকিংস ক্লাবের সভাপতি মোঃ নওশাদ হোসাইন সাজেনের সভাপতিত্বে আরোও উপস্থিত ছিলেন,ভাইসকিংস ক্লাবের সহ-সভাপতি শায়ের মোঃ চিশতি। ভাইসকিংস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফরহাদ চৌধুরী,
চট্টগ্রাম মহানগর তাতীলীগের প্রশিক্ষন ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সালা্হউদ্দিন।
অসহায় কৃষকের  মাঠে নিজে গিয়ে সবজির ন্যায্য দাম দিয়ে কিনেন সবজি। সেই সবজি বন্ধুদের নিয়ে নগরীর বিভিন্ন মোড়ে বিনামূল্যে বিতরণ করেন। বন্ধুরাও তার এই উদ্যােগকে সফল করতে পাশে থাকছেন সবসময়।

নওশাদের এ ভালোবাসা  ছড়িয়ে পড়েছে চট্টগ্রামজুড়ে।  আরও কয়েকটি উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন যা কিছু চলমান। অনেক ছাত্রলীগের ভাইদের নীরবে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। শুধুমাত্র রাংগামাটি নয় অন্যান্য জেলার ছাত্রলীগের ভাইদের প্রতিও রয়েছে তার অফুরন্ত ভালোবাসা।

এ প্রশ্নের জবাবে এনএইচ করপোরেশনের চেয়ারম্যান নওশাদ হোসাইন সাজেন বলেন, সমাজ সেবামূলক এসব কাজ আমরা শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই করার চেষ্টা করি। এর পরও যদি কিছু হয়ে যায়, এর জন্য তো আর মানবসেবা থেমে থাকতে পারে না। কিন্তু দিন শেষে খাবার হাতে ওই ছোট্ট শিশুটি বা জরাগ্রস্ত ক্লান্ত বৃদ্ধ মানুষটির মুখে হাসি দেখলে মনে হয়, আমাদের এই কষ্ট কিছুই না।’

আমাদের গ্রামের বাড়ি রাউজান। সেখানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমার বাবার অবদান রয়েছে।  ট্রাস্টি সাহাদাৎ ফজল উচ্চ বিদ্যালয়সহ শিক্ষা ও সমাজ সেবায় অবদান রাখায় বাবাকে এওয়ার্ড প্রদাণ করা হয়েছে। মানব সেবার কাজটা মূলত শিখেছি বাবার কাছ থেকে। ছোটকাল থেকেই বাবাকে দেখেছি মানুষের বিপদে আপদে ঝাঁপিয়ে পড়তে।

শিল্পবাজার/এইচএম

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here